মেধাবী হয়ে ওঠার ১০ টি কৌশল  

মনোবিজ্ঞানীরা ১০০ বছরেরও বেশি সময় ধরে গবেষণা করেছেন যে অধ্যয়নের কোন  অভ্যাস সবচেয়ে ভাল কাজ করে। এমন কিছু টিপস আছে যা প্রায় প্রতিটি বিষয়ে কার্যকর ভূমিকা পালন করে। উদাহরণস্বরূপ, শুধু পরীক্ষায় পাস করার জন্য অল্প সমইয়ের জন্য বেশি মনযোগ দিয়ে পড়ার চেয়ে রুটিন মাফিক সারা বছর চাপ না নিয়ে অল্প অল্প করে পড়া উচিৎ । পড়ার সময় গ্রাফ ব্যবহার করা যেতে পারে বা লিখে লিখে পড়তে পারেন । আপনার অধ্যয়নের অভ্যাস পরিবর্তন করার জন্য নিচে ১০  টি টিপস উল্লেখ্য করা হলঃ  

1. ক্র্যাম নয় বরং সময় নিয়ে পড়ুন 

আপনারা ক্র্যাম সম্পর্কে হয়ত অবগতনা । ক্র্যাম হচ্ছে অল্প সময়ে বেশি জিনিস শেখার প্রচেষ্টা। উইলিয়ামস্টন, ম্যাসের উইলিয়ামস কলেজের একজন মনোবিজ্ঞানী নেট কর্নেল যখন ছাত্র ছিলেন তখন বড় কোন পরীক্ষার আগে অবশ্যই তিনি ক্র্যাম করেছিলেন।  তিনি তখন হয়ত মনে করতেন যে একটি বড় পরীক্ষার আগের দিন অধ্যয়ন করা একটি ভাল ধারণা। কিন্তু গবেষণা দেখায় যে সেই দিনটিতে আপনার সমস্ত অধ্যয়নকে আটকে রাখা একটি খারাপ ধারণা। 

2009 সালের একটি পরীক্ষায়, কলেজের ছাত্ররা ফ্ল্যাশ কার্ডের সাহায্যে নতুন শব্দ অধ্যয়ন করেছিল। কিছু ছাত্র চার দিন ধরে ভাগ ভাগ করে সমস্ত শব্দ অধ্যয়ন করেছিল। অন্যরা এক দিনে সবকয়টি শব্দ অধ্যয়ন করেছিল। উভয় দল সামগ্রিকভাবে একই পরিমাণ সময় ব্যয় করেছে। কিন্তু পরীক্ষায় দেখা গেছে যে প্রথম দলটি শব্দগুলো ভালোভাবে শিখেছে।

কর্নেল আমাদের স্মৃতিকে একটি বালতিতে থাকা জলের সাথে তুলনা করেছেন যার একটি ছোট ফুটো রয়েছে। বালতিটি পূর্ণ থাকা অবস্থায় পুনরায় পূরণ করার চেষ্টা করুন এবং আপনি বেশি জল যোগ করতে পারবেন না। কাজেই একদিনে সব পড়ার পরিকল্পনা না করে ধীরে ধীরে টার্গেট পূরণ করুন । 

2. অনুশীলন, অনুশীলন, অনুশীলন!

সঙ্গীতশিল্পীরা যেমন তাদের যন্ত্রের অনুশীলন করেন, ক্রীড়াবিদরা যেমন করে ক্রীড়া দক্ষতা অনুশীলন করেন ঠিক একই ভাবে  শিক্ষা অর্জনের জন্যও প্রচুর অনুশীলন করা প্রয়োজন। 

ওহিওর কেন্ট স্টেট ইউনিভার্সিটির একজন মনোবিজ্ঞানী ক্যাথরিন রসন বলেছেন “আপনি যদি তথ্য মনে রাখার সক্ষমতা অর্জন করতে চান  তবে আপনি যা করতে পারেন তা হল অনুশীলন,” । 

3. একই বই এবং নোট বারবার পড়ার চেয়ে একবারে বুঝে পড়তে হবে 

আমরা দেখি অনেকে একটি শব্দ বা লাইন বারবার উচ্চারণ করছেন বা পড়ছেন এবং একই বই বা নোট বারবার পড়ছেন । তাদের তুলনায় যারা একবার বিষয়টি ভালোভাবে বুঝে পড়েন তারাই বেশি ভালো করেন ।  ২০০৯ সালের এক গবেষণায় দেখা যায়, কিছু কলেজ ছাত্র একটি বিষয় দুইবার পড়ে। অন্যরা ঐ বিষয়টি একবার বুঝে পড়ে। উভয় গ্রুপ পড়ার ঠিক পরে একটি পরীক্ষা দেয় । পরীক্ষায় দ্বিতীয় গ্রুপটি ভালো করে। অতএব বুঝে পড়ার প্রতি গুরুত্ব বেশি দিতে হবে ।  

4. নিজেকে পরীক্ষা করুন

পড়ার সময় নিজেকে পরীক্ষা করুন । কোন বিষয় সম্পর্কে পড়ার সাথে সাথে নিজেকে প্রশ্ন করুন । একজন শিক্ষক যেমন করে প্রশ্ন করেন নিজেকে নিজে ঠিক সেরকম করে প্রশ্ন করুন এবং উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করুন । পড়ার সময় পাশে খাতা রাখতে পারেন এবং প্রশ্ন লিখে রাখতে পারেন পড়া শেষ হলে নিজেকে যাচাই করার জন্য প্রশ্নগুলোর উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করুন । 

5. ভুল হতে পারে এই ভেবে নিজেকে যাচাই করা থেকে বিরত থাকা যাবেনা 

স্টুয়ার্ট ফায়ারস্টেইন বলেন,” ভুলগুলো আসলে শেখার প্রাথমিক চাবিকাঠি ”। অর্থাৎ ভুল হলেও বলার চেষ্টা করতে হবে এবং নিজের ভুলগুলো চিহ্নিত করে তা সমাধান করতে হবে । যে যত বেশি নিজের ভুলগুলো চিহ্নিত করতে পারবে সে তত বেশি শিখতে পারবে । আপনার স্মৃতি পরীক্ষা করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তবে আপনি প্রতিটি চেষ্টায় কত সেকেন্ড ব্যয় করেছেন তা সত্যিই বিবেচ্য নয়। এই ফলাফলটি কর্নেল এবং অন্যদের দ্বারা 2016 সালের একটি গবেষণা থেকে এসেছে। 

6. পাঠ্য বিষয় সময় বুঝে পরিবর্তন করুন 

আপনি যদি একটি পড়া দ্বিতীয় বার আবার পড়েন  “আপনার মনোযোগ হ্রাস পাবে। কারণ আপনি জানেন যে পরবর্তীতে কী ঘটছে। আপনার অনুশীলন মিশ্রিত করুন এবং আপনি আপনার বিষয়গুলিকে আলাদা করুন। আপনি আরও দেখতে পারেন কোন বিষয়গুলি কীভাবে আলাদা প্রবণতা তৈরি করে বা অন্য কোনও উপায়ে একসাথে ফিট করে। এক বছর আগে, সানা এবং অন্যরা দেখিয়েছিলেন যে ইন্টারলিভিং শক্তিশালী এবং দুর্বল উভয় কাজের স্মৃতিতে শিক্ষার্থীদের সাহায্য করতে পারে। ওয়ার্কিং মেমরি আপনাকে মনে রাখতে দেয় যে আপনি কোন ক্রিয়াকলাপে কোথায় আছেন, যেমন একটি রেসিপি অনুসরণ করা।

7. ছবি ব্যবহার করুন

নেবেল বলেছেন, “ আপনার পড়ার সাথে সংশ্লিষ্ট ডায়াগ্রাম এবং গ্রাফগুলিতে মনোযোগ দিন, এই উপাদানগুলো  আপনার স্মৃতিশক্তি বাড়াতে পারে এবং যদি ছবি না থাকে সেগুলি তৈরি করা সম্ভব হলে তা তৈরি করেনিন  ।” ম্যাকড্যানিয়েল বলেছেন, “ আমি মনে করি এই চাক্ষুষ উপস্থাপনাগুলি আপনাকে আরও সম্পূর্ণ মানসিক মডেল তৈরি করতে সহায়তা করবে ”। অর্থাৎচিত্র দেখে দেখে পড়ার অভ্যাস করতে পারলে এই চিত্র বা মডেল ডায়াগ্রাম  মস্তিষ্কে দীর্ঘ স্থায়ী প্রভাব ক্রিয়েট করবে । 

8. তাত্ত্বিক কোন ব্যাখ্যা বুঝতে উদাহরণ সেট করুন 

তাত্ত্বিক কোন বিমূর্ত ধারণা বোঝা কঠিন হতে পারে।এই সম্পর্কে নেবেল বলেছেন, “ যদি আপনার কাছে তাত্ত্বিক কোন বিমূর্ত ধারণার একটি সুনির্দিষ্ট উদাহরণ থাকে তবে এটি একটি মানসিক চিত্র তৈরি করে দিবে যা বিষয়টি বুঝতে অনেক সহজ করে দিবে ”।

দেখুন ,এই ধারণাটি মনে রাখা কঠিন হতে পারে যে টক খাবারগুলি টক হওয়ার কারণ এতে একটি অ্যাসিড থাকে।  কিন্তু আপনি যদি লেবু বা ভিনেগারের কথা ভাবেন, তাহলে বুঝতে ও মনে রাখতে সহজ হবে যে অ্যাসিডের কারণে এমন টক স্বাদ পাওয়া যায় । 

প্রকৃতপক্ষে, আপনি যদি নতুন পরিস্থিতিতে কোন তথ্য প্রয়োগ করতে বা শিখতে চান তবে এর জন্য কমপক্ষে দুটি উদাহরণ সেট করুন । 

9. পাঠ্য বিষয়ের গভীরতা অনুধাবন করার চেষ্টা করুন 

আপনি যে বিষয়টি পড়ছেন তার গভীরতা অনুধাবন করতে বিস্তারিত পড়ুন । অল্প পড়ে রেখে দিবেন না । অল্প অল্প পড়ে রেখে দিলে সেই জ্ঞান পূর্ণতা পায়না । অনেক সময় এর জন্য আপনি লজ্জিতও হতে পারেন। যখন যা পড়বেন বুঝার চেষ্টা করুন এবং গভীরভাবে পড়ুন । 

বিশদ বিবরণ আপনাকে আপনার জানা অন্যান্য জিনিসের সাথে নতুন তথ্য একত্রিত করতে সহায়তা করে। এবং এটি আপনার মস্তিষ্কে একটি বড় নেটওয়ার্ক তৈরি করে যা একে অপরের সাথে সম্পর্কিত। এই বৃহত্তর নেটওয়ার্ক নতুন জিনিস শিখতে এবং মনে রাখতে আপনার মস্তিষ্ককে সহযোগীতা করবে ৷

10. একটি পরিকল্পনা সেট করুন এবং লেগে থাকুন

অনেক শিক্ষার্থী জানে যে তাদের অধ্যয়নের সময়সীমা বের করা উচিত, নিজেদের যাচাই করা উচিত এবং অন্যান্য ভালো দক্ষতা অনুশীলন করা উচিত। তবুও অনেকেই আসলে সেই কাজগুলো করে না। প্রায়শই, তারা সামনের পরিকল্পনা করতে ব্যর্থ হয়। কিন্তু এমনটি করা যাবেনা। প্রকৃত জ্ঞান অর্জন করতে চাইলে একটি সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা তৈরি করে তা অনুসরণ করা বাঞ্ছনীয়। 

0 Shares:
Leave a Reply

Your email address will not be published.

You May Also Like
Read More

পড়ালেখায় মনোযোগী হওয়ার নয়টি উপায় 

আমরা যারা পড়াশোনা করি অর্থাৎ শিক্ষার্থী তাদের সিংহভাগ মানুষের একটি সাধারণ সমস্যা হলো পড়াশোনায় মন বসেনা। পড়াশোনায় মন…
Read More

লার্নটাইমের অনলাইন ক্লাসগুলো থেকে যেভাবে শিখবেন 

আপনারা জানেন লার্নটাইম অনলাইনে  ওয়ান টু ওয়ান পদ্ধতিতে শিখিয়ে তাকে । যেখানে একজন শিক্ষার্থীর জন্য একজন শিক্ষক থাকেন…
Read More

ছাত্রজীবনে যা  অর্জন করা উচিৎ 

বৈচিত্র্যময় জীবনে ধাপে ধাপে বহুমাত্রিক অভিজ্ঞতার সঞ্চার ঘটে । ছাত্রজীবন একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। ছাত্রজীবন শেষে যখন পেশাজীবনে প্রবেশ…